মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রখ্যাত ব্যাক্তিত্ব

 

আব্দুর রৌফ চৌধুরী (১৯৩৭-২০০৭ খ্রিঃ)

 

            সাবেক  ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জনাব আব্দুর রৌফ চৌধুরী দিনাজপুর জেলার একজন বরেণ্য রাজনীতিবিদ। তিনি ১৯৩৭ সালের ২৮ ডিসেম্বর বোচাগঞ্জ উপজেলার ধনতলায় এক সম্ভ্রান্ত চৌধুরী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৫৩ সালে মেট্রিক পাশ করেন এবং ১৯৫৪ সালে দিনাজপুর সুরেন্দ্রনাথ ডিগ্রী কলেজে ভর্তি হন।

 

          তিনি স্কুল জীবনেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। ১৯৫৪ সালে বৃহত্তর দিনাজপুর জেলার ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক, ১৯৮০-৮১ সালে দিনাজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এবং ১৯৮৭ সালে সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৬৬ সালের ৬ দফা আন্দোলনের সফল ছাত্র নেতা, ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুর্থানের নেতৃত্বদানকারী এবং ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন।

 

             জনাব আব্দুর রৌফ চৌধুরী ১৯৮৯ সালে বোচাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ১৯৯৬ সালে দিনাজপুর-১ আসন থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে ১৯৯৮ সালের ২৮ ডিসেম্বর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন।

 

ব্যাক্তি জীবনে তিনি ৫ কন্যা ও এক পুত্রের  জনক।জনাব খালিদ মাহমুদ চৌধুরী,মাননীয় সংসদ সদস্য ৭-দিনাজপুর-২ এবং সাংগাঠনিক সম্পাদক ,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রিয় কমিটি তার সুযোগ্য পুত্র।

 

তিনি ২০০৭ সালের ২১ অক্টোবর মৃত্যু বরন করেন।

 

 

হাজী মোহাম্মদ দানেশ (১৯০৪-১৯৮৬)।

           তেভাগা আন্দোলনের প্রান পুরুষ হাজী মোহাম্মদ দানেশ ১৯০৪ সালে দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলার টেনা গ্রামে এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জম্ম গ্রহণ করেন।তাঁর পিতার নাম সালাম উদ্দীন সরকার।তেভাগা আন্দোলনের কথা উঠলেই যে নামটি প্রথমেই ভেসে আসে সেটি হলো হাজী মোহাম্মদ দানেশ।আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করা এই মেধাবী নেতা মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খাঁন ভাসানীর ঘনিষ্ট রাজনৈনিক সহচর হিসেবে দেশে-বিদেশে পরিচিত।চীনের সাংগুয়ান প্রদেশে তাঁর নামে একটি রাস্তার নামকরন করা হয়েছে।সেতাবগঞ্জ চিনি কল প্রতিষ্ঠার প্রধান দাবীদার হাজী মোহাম্মদ দানেশ।তাঁর নামে দিনাজপুরের বৃহত্তম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ।বোচাগঞ্জ উপজেলার বড় সুলতানপুরে হাজী দানেশ কলেজ ও এতিমখানা প্রতিষ্ঠিত।১৯৮৬ সালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।(সংগ্রহঃ সাজ্জাদ হোসেন,সাংবাদিক

ছবি